রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৫০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
চেয়ারম্যান: মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, বার্তা প্রধান : মোহাম্মদ আসিফ খোন্দকার, আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট ইলিয়াস , যোগাযোগ : ০১৬১৬৫৮৮০৮০,০১৮১১৫৮৮০৮০, ঢাকা অফিস: ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম রোড, চৌধুরী মল (৫ম তলা), টিকাটুলি ১২০৩ ঢাকা, ঢাকা বিভাগ, বাংলাদেশ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com চট্টগ্রাম অফিস: পিআইবি৭১ টাওয়ার , বড়পুল , চট্টগ্রাম।

যৌতুক বিরুদ্ধে সোচ্চার হাওয়া সময়ের দাবি

যৌতুক একটি মারাত্মক সামাজিক ব্যাধি।যৌতুকের বিরুদ্ধে আইন থাকলে প্রয়োগ হচ্ছে বলে সচেতন নাগরিক সামাজের দাবি। সমাজের কিছু অসাধু ব্যক্তি আছে। যারা ভিক্ষুকের চেয়ে খারাপ। ভিক্ষক ভিক্ষা করে নিরূপায় হয়ে। সমাজের কিছু ব্যক্তি আছে যারা সম্বলনীয় হয়ে যৌতুকের জন্য অসহায় দরিদ্র পরিবারকে জোঁকের মতো শোষণ করে যাচ্ছে।

সমাজের কিছু অসাধু মানুষ আছে! যারা ভাল মানুষ সেজে অসহায় মানুষকে জোঁকের মতো শোষণ করে যাচ্ছে। তারা প্রথমের দরিদ্র পরিবারের মেয়েদেরকে টার্গেট করে। দরিদ্র পরিবারের মেয়েদের পছন্দ হয়েছে বললে বড় লোকের ছেলে সাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফাঁদে পেলান।তাদের প্রথম কথা থাকে যে আপনি দরিদ্র মানুষ অনেক কষ্ট করে পরিবারজন নিয়ে বসাবাস করে যাচ্ছে। আমাকে যৌতুক দিতে হবে না।শুধু মাত্র আপনার মিষ্টি মেয়ে আমার লক্ষী করে রাখতে চাই! মেয়ের পরিবার বলে আমরা ধনী মানুষ। আমাদের সম্ভব না আমাদের সাথে আত্নীয়তা করার।

এইবার ঘটকের পালা। এই ঘটক মিথ্যা মায়া জাল বুনলো। কিভাবে ধনীদের দিয়ে গরীবের জোঁকের মতো শোষণ করা যায়। ঘটক সাহেব বলে আমরা গভীর মানুষ অনেক কষ্ট নিয়ে জীবন যাপন করতেছে। ধনী পরিবারের আপনাদের মেয়েদের বিয়ে দিলে আপনার ভাগ্য পরিবর্তন হবে। আর এতো কষ্ট করতে হবে না। কথাগুলো শুনে মোমের মতো গলি যায় গরীব অসহায় মানুষের মন। রাজি হয়ে যায় ভাগ্য পরিবর্তন নামে মেয়েদের ধনী পরিবারের কসাইদের সাথে আত্মীয়তা করার জন্য —

এই ভাবে মিথ্যা জালে পড়ে শেষমেষ ধনী পরিবারের সাথে গরীর পরিবারের আত্মীয়তা সৃষ্টি হয়। তারপর থেকে শুধু হয় উপহার নামে প্রথা। বিয়ে আগে কিছু না নেওয়া কথা থাকলে। দু’টি পরিবারের সম্পর্ক তৈরি হাওয়া পর মেয়ের সুখে চাহিদা বলে চাইতে থাকে যৌতুক নামে উপহার। ঘটক সাহেব মেয়ে পরিবারের বললে ওনাদের টাকা পয়সা অভাব নেই। তবে যা কিছু দিবে আপনার মেয়েকে দিবেন। সুতরাং আপনার মেয়ে জন্য কিছু উপহার দিতে হবে। আমরা আপনার কাছে বেশি কিছু জোড় করতেছি না। শুধু মাত্র একটা খাট, আলমারি, সুফা সেট আর কিছু লোকজন আসবে।ওনাদের একটু মেহমান দারী করলে হবে।অসহায় মেয়ের পক্ষ লোকজন বললে আপনারা তো কিছু নিবেন না বললেন এখন এতো কিছু কেনো আমাদের পক্ষে সম্ভব না এতো কিছু আপনাদের যৌতুক দেওয়া।

ঘটক সাহেব বললো একটু ভেবে দেখেন এই পরিবারের সাথে সম্পর্ক আপনারা সারা জীবনে করতে পারবে না। এই বার নিজের ভাগ্যটা পরিবর্তন করেন দেখেন? এমন সুযোগ সবার কাছে আছে না। ঘটকের মিথ্যা জালে শেষমেষ মেয়ের সুখে কথা চিন্তা করে রাজি হয় অসহার পরিবারের লোকজন। তারপর চোখের ঘুম কালসাপ হয়ে দাঁড়াই যৌতুকের টাকা জোগাড় করার জন্য শেষে টাকা জোগাড় দিতে ঘরবাড়ি বন্ধক, মাসিক মুনাফা হারে সুদ,ধনীদের হাতে পাশের ধরে টাকাপয়সা ধার নেওয়া ইত্যাদি।

আমরা প্রতিদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন জেলা, উপজেলায় কোরবানি ঈদের গরু ছাগল যৌতুকের দাবিতে অসহায় পরিবারের নেমে আসে শারিরীক মানসিক নির্যাতন। যৌতুকের ছাগল দিতে পাড়ায় অল্প বয়সের অসহায় দরিদ্র পরিবারকে মেয়ের প্রাণ দিতে হচ্ছে। কয়েক দিন আগে রাউজানে একটা দরিদ্র মেয়ে পরিবারের কাছে কোরবানি উপলক্ষে ছাগল চান শ্বশুরবাড়ী লোকজন। মেয়ের বাবা হাত-পা ধরে ক্ষমা চেয়েছেন ছাগল দিতে পারবে না বলে। ক্ষমা চাওয়া পড়ে মেয়ের শ্বশুরবাড়ী লোকদের মন গলেনি।তারা ছাগলের জন্য মেয়েকে নির্যাতন করে মেরে পেলছে।

চট্টগ্রামে ২০১৪ সালের ৯ জানুয়ারি পতেঙ্গা থানার খালপাড় এলাকার শাহাজাহান গলিতে শ্বাসরোধ করে স্ত্রী রুমা বেগমকে হত্যা করা হয়।যৌতুকের জন্য বিবি ফাতেমা লিপি (২৩) নামে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা করল স্বামী।

যৌতুক না পেয়ে বাঁশখালী থানায় ২০১৩ সালে মো. হাশেম তার স্ত্রী বেবী আক্তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

যৌতুকের জন্য স্বামীর নির্যাতনে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া মাহমুদা খানম ওরফে আঁখি একনামে শ্বশুরবাড়ী লোকজন নির্যাতন করে হত্যা করেন।কক্সবাজার যৌতুকের জন্য অর্থ লোভী স্বামীর হাতে খুন হওয়া কক্সবাজার সরকারী কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের ৩য় বর্ষের ছাত্রী হাসিনা আক্তার।

২০১৮ সালে ২৪ জুন আনোয়ারা উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নে যৌতুক এক লাখ টাকা দাবিতে শাহিদা আক্তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেওয়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

১৪ মে ২০২২ সালে নেত্রকোণা সদর উপজেলার আমতলী ইউনিয়নের ঝগড়াকান্দা গ্রামে যৌতুক টাকার জন্য শিউলি আক্তার (২০) নামে গৃহবধূকে মরিচের গুড়া মেশানো পানি খেতে দেওয়া হয়। এমনকি ওই পানি ঢেলে দেওয়া হয় তার শরীরেও।

নওগাঁর নিয়ামতপুরে যৌতুক দিতে না পারায় শাহিনুর বেগম (৩০) নামে এক গৃহবধূকে স্ত্রী চুল কেটে দেওয়া অভিযোগ স্বামী বিরুদ্ধে।

ব্রা‏হ্মণবাড়িয়ার কসবায় সীমা আক্তার (২৫) নামের এক গৃহবধূ খুন করে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

রাউজান উপজেলায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে মো. আলমগীর তালুকদার (৫০) নামে এক ব্যক্তি তার স্ত্রী তাওহিদুন্নেসা (২৫) কে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ৭ নং ইউনিয়নের খলিলাবাদ গ্রামের আবদুল মোনাফ মধ্যপ্রাচ্য থেকে বাড়ীতে এসে তার স্ত্রী চার সন্তানের জননী রেহেনা আকতার কে তার বাপের বাড়ী থেকে চার লক্ষ টাকা যৌতুক এনে নিতে চাপ প্রয়োগ করলে, রেহেনা আকতার চার লক্ষ টাকা এনে দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে চার সন্তানের মাতা রেহেনাকে পাষন্ড স্বামী আবদুল মোনাফ বেদম ভাবে প্রহার করেন।

পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলায় যৌতুকের দাবিতে ইতি আক্তার (২৬) নামে এক নারীকে পেট্রল ঢেলে আগুন পুড়ে মারা অভিযোগ ওঠেছে ডিভোর্স দেওয়া স্বামী জলিলের বিরুদ্ধে।

যৌতুকের সংজ্ঞা:: বিয়ের সময় মেয়েপক্ষের কাছ থেকে ছেলেপক্ষের আর্থিক বা অন্য কোনো সুবিধা নেয়াকে সাধারণত যৌতুক বলা হয়ে থাকে। তবে আইনে বিয়ের শর্ত হিসেবে বর বা কনেপক্ষের দাবিদাওয়াকে যৌতুক বলে।

১৯৮০ সালের যৌতুক নিরোধ আইন অনুযায়ী, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে বিয়ের আগে ও পরে বা বিয়ে চলাকালে যে কোনো সময় যে কোনো সম্পদ বা মূল্যবান জামানত হস্তান্তর করে বা করতে সম্মত হওয়া। যৌতুক গ্রহণ ও যৌতুক প্রদান অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে।

যৌতুকের শাস্তি:: যৌতুক নেয়া শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এই অপরাধ প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ পাঁচ বছর এবং সর্বনিম্ন এক বছর কারাদণ্ড বা জরিমানা বা উভয় দণ্ড হতে পারে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com