মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:২৬ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
চেয়ারম্যান: মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, বার্তা প্রধান : মোহাম্মদ আসিফ খোন্দকার, আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট ইলিয়াস , যোগাযোগ : ০১৬১৬৫৮৮০৮০,০১৮১১৫৮৮০৮০, ঢাকা অফিস: ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম রোড, চৌধুরী মল (৫ম তলা), টিকাটুলি ১২০৩ ঢাকা, ঢাকা বিভাগ, বাংলাদেশ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com চট্টগ্রাম অফিস: পিআইবি৭১ টাওয়ার , বড়পুল , চট্টগ্রাম।

এশিয়া-আফ্রিকায় রক্তপাত স্বাভাবিক, ইউরোপে নয়

ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধ নিয়ে ব্রিটিশ প্রিন্স উইলিয়াম বেঁফাস মন্তব্য করায় বিতর্ক শুরু হয়েছে। সম্প্রতি লন্ডনে স্ত্রী কেট মিডলটনকে সঙ্গে নিয়ে ইউক্রেনের একটি সাংস্কৃতিক কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়েছিলেন তিনি।

সেখানে ইউক্রেনের বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে উইলিয়াম বলেন, ‘ইউরোপ এ ধরনের যুদ্ধ ও রক্তপাতের ছবির সঙ্গে পরিচিত নয়। আমরা ওদের পাশে আছি।’

তার এ মন্তব্যের পর নিন্দার ঝড় বইছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। উপনিবেশবাদের ইতিহাস মনে করিয়ে দিয়ে টুইটারে একজন লিখেছেন, ‘প্রিন্স উইলিয়াম আসলে বলতে চেয়েছেন, এশিয়া ও আফ্রিকায় যুদ্ধ আর রক্তপাতের ঘটনা স্বাভাবিক। ইউরোপে নয়।’

উইলিয়ামের এ মন্তব্যকে ‘বিরক্তিকর ও জাতিবিদ্বেষী’ তকমা দিয়ে আরও একজন লিখেছেন, ‘প্রিন্স উইলিয়াম, আপনার পূর্বপুরুষেরা লুটপাট করে, উপনিবেশ গড়ে, গণহত্যা চালিয়ে দেশের পর দেশ দখল করেছেন। আপনার দেশ যুদ্ধ দিয়েই গড়া। ইতিহাস তেমনটাই বলছে।’

এর আগে ইউক্রেনীয় শরণার্থী প্রসঙ্গে বেফাঁস মন্তব্যের জেরে তোপের মুখে পড়েন বুলগেরিয়া ও পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট। তাদের বক্তব্য ছিল এরকম যে, ‘ইউক্রেন থেকে যত শরণার্থীই আসুন না কেন, তাদের আশ্রয় দিতে আমরা প্রস্তুত। কারণ ওরা অন্য শরণার্থীদের মতো নন। ওরা শিক্ষিত, বুদ্ধিমান মানুষ।’

জাতিসংঘের তথ্য বলছে, ইউক্রেন-রাশিয়ার সংঘাত শুরুর পর দেশটি থেকে ১২ লাখের বেশি মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন অন্যত্র। যুদ্ধ পরিস্থিতিতে চরম মানবিক সংকট তৈরি হয়েছে সেখানে।

এদিকে, ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের ১৭তম দিনেও আরও দুটি শহরে হামলার খবর পাওয়া গেছে। সর্বশেষ হামলায় ২ জন নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com