সোমবার, ২২ Jul ২০২৪, ০২:১০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
চেয়ারম্যান: মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, বার্তা প্রধান : মোহাম্মদ আসিফ খোন্দকার, আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট ইলিয়াস , যোগাযোগ : ০১৬১৬৫৮৮০৮০,০১৮১১৫৮৮০৮০, ঢাকা অফিস: ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম রোড, চৌধুরী মল (৫ম তলা), টিকাটুলি ১২০৩ ঢাকা, ঢাকা বিভাগ, বাংলাদেশ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com চট্টগ্রাম অফিস: পিআইবি৭১ টাওয়ার , বড়পুল , চট্টগ্রাম।
সংবাদ শিরোনাম:
কোটা আন্দোলনে সাধারণ স্কুল কলেজ ছাত্র ও ছাত্রীরা ১০ ঘন্টা বন্ধ করে দেয় নওগাঁ-সান্তাহারের রেলযোগাযোগ যশোরের ঝিকরগাছায় প্রবাসীর স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা ,কন্যা গুরুতর আহত বঙ্গবন্ধু কন্যা গোলামী চুক্তি করেননি উন্নয়নের চুক্তি করেছেখাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদা নওগাঁর মান্দা গোটগাড়ী অধ্যক্ষের কক্ষের তালা ভেঙে প্রবেশ করলেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাংবাদিকদের বিতর্কিত করায় এনবিআর কর্মকর্তা মতিউরের প্রথম স্ত্রী লাকীর বিরুদ্ধে বিএমইউজে চট্রগ্রাম জেলা আহবায়ক কমিটির প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের প্রয়াণ দিবস আজ জুয়া খেলার সরঞ্জাম ও নগদ টাকাসহ পাঁচজন জুয়াড়ি গ্রেফতার বিপৎসীমার ওপরে তিস্তা-ধরলার পানি, পানিবন্দি ১৫ হাজার মানুষ হাড্ডাহাড্ডি দুই চৌধুরীর ‘লড়াই লোহাগাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জিতে গেলেন খোরশেদুল আলম চৌধুরী কোন লক্ষণে বুঝবেন বিবাহবিচ্ছেদ ঘটতে পারে?

শুরুতেই ঝড় তুলেছিলেন লিটন দাস

ঝড় তুলেছিলেন লিটন দাস। নাবিল সামাদ, সৈয়দ খালেদ আহমেদের বলে একের পর এক বাউন্ডারিতে দলকে এনে দেন উড়ন্ত সূচনা। ইনিংসের পরের অংশের দায়িত্বটা নিজের কাঁধে তুলে নেন ইংলিশ অলরাউন্ডার মইন আলি। তার ব্যাটেও ওঠে সাইক্লোন।

লিটন-মইনের তান্ডবে ঢাকায় ফিরে খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। আগেই প্লে-অফ নিশ্চিত করা দলটির নির্ধারিত ২০ ওভারে সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৮৮ রান।  প্রতিপক্ষে আমন্ত্রণে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারটি দেখেশুনেই খেলেন কুমিল্লার দুই ওপেনার লিটন দাস ও মাহমুদুল হাসান জয়।

লিটন-মইনের তান্ডবে ঢাকায় ফিরে খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। আগেই প্লে-অফ নিশ্চিত করা দলটির নির্ধারিত ২০ ওভারে সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৮৮ রান। এই ম্যাচ জিতে প্লে-অফের দিকে এগিয়ে যেতে খুলনাকে করতে হবে ১৮৯ রান।

মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন খুলনার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। প্রতিপক্ষে আমন্ত্রণে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারটি দেখেশুনেই খেলেন কুমিল্লার দুই ওপেনার লিটন দাস ও মাহমুদুল হাসান জয়।

নাবিলের করা দ্বিতীয় ওভারে ১৬ ও খালেদের করা তৃতীয় ওভারে ১৯ রান নিয়ে শুরুটা দুর্দান্ত করেন লিটন-জয়। তবে ইনিংসের পঞ্চম ওভারে জয়কে (১৫ বলে ১১) ফিরিয়ে প্রাথমিক ধাক্কা দেন নাবিল। পরের ওভারে থিসারা পেরেরার প্রথম বলেই উইকেটের পেছনে ক্যাচ আউট হন লিটন।

মুশফিকের দারুণ ক্যাচে পরিণত হওয়ার আগে ৪টি চার ও ৩টি ছয়ের মারে মাত্র ১৭ বলে ৪১ রানের দৃষ্টিনন্দন ইনিংস খেলেন ডানহাতি ওপেনার লিটন। এরপর ৮ বল খেলে মাত্র ৫ রান করতে সক্ষম হন অধিনায়ক ইমরুল কায়েস। দশ ওভারের মধ্যে মাত্র ৭১ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে কুমিল্লা।

চতুর্থ উইকেট জুটিতে দলকে বড় সংগ্রহের পথে নিয়ে যান ফাফ ডু প্লেসি ও মইন আলি। এ দুজনের জুটিতে আসে ৮৩ রান, তাও মাত্র ৭.৪ ওভার। যেখানে বড় অবদান মূলত মইন আলির। অনেকটা ওয়ানডে স্টাইলে খেলে ৩৬ বলে ৩৮ রান করেন ডু প্লেসি।

ঠিক বিপরীত রূপে ছিলেন মইন। শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করে মাত্র ২৩ বলে তুলে নেন নিজের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের ২৫তম ফিফটি। যেখানে ছিল ৭টি ছয়ের মার। ফিফটি ছোঁয়ার পর আরও ১ চারের সঙ্গে ২ ছক্কা হাঁকান মইন।

ইনিংসের ১৯তম ওভারের শেষ বলে আউট হওয়ার আগে ১ চার ও ৯ ছয়ের মারে মাত্র ৩৫ বলে ৭৫ রানের সাইক্লোন চালান এ ইংলিশ অলরাউন্ডার। ইনিংসের একদম শেষ বলে ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে ১৮৮ রানে নিয়ে যান মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন।

খুলনার পক্ষে ২ উইকেট নিয়েছেন থিসারা পেরেরা। এছাড়া নাবিল সামাদ, শেখ মেহেদি হাসান, সৌম্য সরকার ও সৈয়দ খালেদ আহমেদের শিকার ১টি করে উইকেট।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com