রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৪৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
প্রকাশক ও সম্পাদক : মোঃ বিল্লাল হোসেন।  আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট রাসেল । যোগাযোগ : ০৩১-৭২৮০৮৫, ০১৮১১৫৮৮০৮০ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com জহুর উল্লাহ বিল্ডিং (৩য় তলা), পানওয়ালা পাড়া, চৌমুহনী, উত্তর আগ্রাবাদ ১২৭৭, চট্টগ্রাম।
সংবাদ শিরোনাম:
বিপিএম ও পিপিএম পদক পাচ্ছেন মৌলভীবাজার জেলার তিন পুলিশ অফিসার কমলগঞ্জে দিনব্যাপি পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত মহাসড়কে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি জোরদার করতে হবে: হাইওয়ে পুলিশ প্রধান লোহাগাড়ায় আইডিয়াল স্কুলে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে আলোচনা, বার্ষিক পুরুষ্কার বিতরণী ও সেরা মা অ্যাওয়ার্ড প্রদান সংগঠন বিরোধী কার্ষকলাপের অভিযোগে যশোর জেলা  যুবলীগ নেতা মিলনকে অব্যাহতি ভাষা শহিদদের প্রতি মৌলভীবাজার পুনাকের শ্রদ্ধাঞ্জলি মৌলভীবাজারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে পুলিশ আওয়ামী লীগ হট্রগোল শ্রীমঙ্গলে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ গভীর শ্রদ্ধার সাথে ভাষা শহীদদের স্মরণ শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠী’র উদ্যোগে মাতৃভাষা দিবস পালিত

গরুর মাংসের কেজি ৭০০ টাকা

পবিত্র শবে বরাতকে সামনে রেখে গরুর মাংসসহ বেশ কিছু পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। এক সপ্তাহ আগে গরুর মাংস স্থান ভেদে ৬০০ থেকে ৬৫০ টাকায় বিক্রি হলেও আজ (১৮ মার্চ) শুক্রবার তা ৭০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া হালুয়া বানানোর আরেকটি অনুসঙ্গ গাজরসহ বিভিন্ন সবজির দামও বেড়েছে। বেড়েছে মুরগির দামও। তবে অপরিবর্তিত রয়েছে আটা, ময়দা, চিনি ও দুধের দাম।আজ (১৮ মার্চ) শুক্রবার  রাজধানীর উত্তর বাড্ডার বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

শবে বরাতের রাতে বাঙালি মুসলিমদের মধ্যে ভালো খাবার আয়োজনের রীতি রয়েছে। এদিন অনেকে রুটি হালুয়া, গরুর মাংসসহ সাধ্য অনুযায়ী ভালো ভালো রান্নাবান্না করে থাকেন। সেসব খাবার গরিবদের দেওয়া ছাড়াও পাড়া-প্রতিবেশীদের মধ্যে দেওয়ার প্রচলন রয়েছে। এজন্য এ রাত উপলক্ষে অনেকেই ভালো কিছু রান্না করেন। আর এই সুযোগটাই নিচ্ছেন অসাধু ব্যবসায়ীরা।

রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত গরুর মাংসের দোকানে ভিড়। উত্তর বাড্ডার কাঁচাবাজারের মাংস ব্যবসায়ী নুরু জাগো নিউজকে জানান, আজ গরুর মাংস ৭০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

তবে দাম কেন বাড়ছে এর কোনো উত্তর দিতে পারেননি তিনি। বারবার জিজ্ঞেস করলেও ব্যস্ততা দেখিতে কোনো জবাব দেননি তিনি। বরং বিরক্তি প্রকাশ করে বলেন, আপনি কি একমণ মাংস নেবেন,সেখানে এক ক্রেতার সঙ্গে কথা হয়। বাড্ডার তেঁতুলতলার বাসিন্দা মো. রিপন মিয়া একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। মাংস না কিনেই ফিরে যাচ্ছেন তিনি। জাগো নিউজকে তিনি বলেন, ভেবেছিলাম শবে বরাতের রাতে চালের রুটির সঙ্গে মাংস খাবো। এটা বিশেষ করে বাচ্চাদের দাবি। কিন্তু বাজারে এসে দেখি মাংসের দাম বেড়ে গেছে। এতো দাম দিয়ে মাংস কেনা সম্ভব না।

রিপন মিয়া চলে গেলেও অনেকেই মাংস কিনছেন। বিক্রেতার যেন দমফেলার ফুরসত নেই। তবে অনেকে এক বা দুই কেজি মাংস কেনার জন্য এলেও কেউ কেউ আধাকেজিও কিনছেন।

অন্যদিকে গাজরের দামও দ্বিগুণ হয়ে গেছে। গত সপ্তাহে ২০ টাকা কেজি বিক্রি হলেও শুক্রবার তা ৪০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। গুলশান গুদারাঘাটের সবজি বিক্রেতা জনি এ বিষয়ে বলেন, এখন তাও কিনতে পারছেন। দুদিন পর ৬০ টাকা দরে কিনতে হবে।

এদিকে বাজারে খোলা চিনি ৮০ টাকা, আটা ৩৫ টাকা, সুজি ৮০ টাকা কেজি, ভারতীয় পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৪০ টাকা, দেশি পেঁয়াজ ৫০ টাকা, ডিমের ডজন ১১০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে।

পাকিস্তানি মুরগির দামও কেজিতে ২০ টাকা বেড়েছে। আগে ৩০০ টাকায় বিক্রি হলেও শুক্রবার ৩২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর ব্রয়লার মুরগির দাম নেওয়া হচ্ছে ১৬৫ টাকা কেজি।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com