রবিবার, ১৪ Jul ২০২৪, ০১:১১ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
চেয়ারম্যান: মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, বার্তা প্রধান : মোহাম্মদ আসিফ খোন্দকার, আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট ইলিয়াস , যোগাযোগ : ০১৬১৬৫৮৮০৮০,০১৮১১৫৮৮০৮০, ঢাকা অফিস: ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম রোড, চৌধুরী মল (৫ম তলা), টিকাটুলি ১২০৩ ঢাকা, ঢাকা বিভাগ, বাংলাদেশ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com চট্টগ্রাম অফিস: পিআইবি৭১ টাওয়ার , বড়পুল , চট্টগ্রাম।
সংবাদ শিরোনাম:
বঙ্গবন্ধু কন্যা গোলামী চুক্তি করেননি উন্নয়নের চুক্তি করেছেখাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদা নওগাঁর মান্দা গোটগাড়ী অধ্যক্ষের কক্ষের তালা ভেঙে প্রবেশ করলেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাংবাদিকদের বিতর্কিত করায় এনবিআর কর্মকর্তা মতিউরের প্রথম স্ত্রী লাকীর বিরুদ্ধে বিএমইউজে চট্রগ্রাম জেলা আহবায়ক কমিটির প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের প্রয়াণ দিবস আজ জুয়া খেলার সরঞ্জাম ও নগদ টাকাসহ পাঁচজন জুয়াড়ি গ্রেফতার বিপৎসীমার ওপরে তিস্তা-ধরলার পানি, পানিবন্দি ১৫ হাজার মানুষ হাড্ডাহাড্ডি দুই চৌধুরীর ‘লড়াই লোহাগাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জিতে গেলেন খোরশেদুল আলম চৌধুরী কোন লক্ষণে বুঝবেন বিবাহবিচ্ছেদ ঘটতে পারে? সিসিটিভি ফুটেজ এবং ‘Hello CMP’ অ্যাপের “আমার গাড়ি নিরাপদ” সেবার সহায়তায় মুখে হাসি ‘সরকার নারীর গৃহস্থালি কাজের অর্থনৈতিক মূল্য নির্ধারণের বিষয় বিবেচনা করছে’- অর্থ প্রতিমন্ত্রী

রেললাইনের গেটকিপারদের চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে কমলাপুরে অনশন

রাজস্ব খাতে চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে কমলাপুর রেলস্টেশনে অবস্থান ও আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করছেন গেটকিপার রাজস্বকরণ বাস্তবায়ন ঐক্য পরিষদ পূর্ব ও পশ্চিম অঞ্চলের শ্রমিকেরা। বাংলাদেশ রেলওয়ের মানোন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের ১ হাজার ৮৮৯ জন গেটকিপারের চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে এই কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

আজ রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে কমলাপুর রেলওয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে এই প্রকল্পের শত শত গেটকিপার কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন। কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া সাইফুল ইসলাম নামের এক গেটকিপার বলেন, ‘তিন থেকে চার মাস পরপর আমাদের বেতন দেওয়া হচ্ছে। এতে আমরা মানবেতর জীবন যাপন করছি। দীর্ঘদিন যাবৎ কাজ করছি, কিন্তু চাকরি স্থায়ী করা হচ্ছে না।’

গেটকিপার রাজস্বকরণ বাস্তবায়ন ঐক্য পরিষদ পূর্ব ও পশ্চিম অঞ্চলের দপ্তর সম্পাদক মো. আল মামুন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর একনেক সভার নির্দেশনা অনুযায়ী রাজস্বকরণ বাস্তবায়ন না করায় আমরা এই অবস্থান কর্মসূচি পালন করছি। আমাদের ১ হাজার ৮৮৯ জন গেটকিপারের নিয়োগ যত দিন পর্যন্ত রাজস্ব খাতে স্থায়ী করে প্রজ্ঞাপন জারি না করা হবে, তত দিন পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে।’

আল মামুন বলেন, ‘রেলওয়ের পূর্বাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলের লেভেল ক্রসিংগুলোর পুনর্বাসন ও মানোন্নয়ন শীর্ষক দুটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয় ২০১৫ সালে। এর মধ্যে ১ হাজার ৮৮৯ জন গেটকিপারকে অস্থায়ীভাবে নিয়োগ দেওয়া হয়। দুবার প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে, তার পরও আমাদের স্থায়ী করা হয়নি।’

‘বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের লেভেল ক্রসিং গেটসমূহের পুনর্বাসন ও মানোন্নয়ন’ এবং ‘বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের লেভেল ক্রসিং গেটসমূহের পুনর্বাসন ও মানোন্নয়ন’ শীর্ষক প্রকল্প দুটি ২০১৫ সালের ২৫ জুন একনেক সভায় অনুমোদিত হয়।

মূল প্রকল্পের আওতায় অবকাঠামো নির্মাণ এরই মধ্যে সমাপ্ত হয়েছে। পাশাপাশি একনেক সভার নির্দেশনাক্রমে পূর্বাঞ্চলে ৮২৯ ও পশ্চিমাঞ্চলে ৮৫১ জনকে গেটকিপার হিসেবে পদায়ন করা হয়েছে। তাই প্রকল্প দুটির আওতায় সংস্থানকৃত গেটকিপারদের রাজস্ব খাতে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com