রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৫৪ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
প্রকাশক ও সম্পাদক : মোঃ বিল্লাল হোসেন।  আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট রাসেল । যোগাযোগ : ০৩১-৭২৮০৮৫, ০১৮১১৫৮৮০৮০ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com জহুর উল্লাহ বিল্ডিং (৩য় তলা), পানওয়ালা পাড়া, চৌমুহনী, উত্তর আগ্রাবাদ ১২৭৭, চট্টগ্রাম।
সংবাদ শিরোনাম:
বিপিএম ও পিপিএম পদক পাচ্ছেন মৌলভীবাজার জেলার তিন পুলিশ অফিসার কমলগঞ্জে দিনব্যাপি পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত মহাসড়কে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি জোরদার করতে হবে: হাইওয়ে পুলিশ প্রধান লোহাগাড়ায় আইডিয়াল স্কুলে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে আলোচনা, বার্ষিক পুরুষ্কার বিতরণী ও সেরা মা অ্যাওয়ার্ড প্রদান সংগঠন বিরোধী কার্ষকলাপের অভিযোগে যশোর জেলা  যুবলীগ নেতা মিলনকে অব্যাহতি ভাষা শহিদদের প্রতি মৌলভীবাজার পুনাকের শ্রদ্ধাঞ্জলি মৌলভীবাজারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে পুলিশ আওয়ামী লীগ হট্রগোল শ্রীমঙ্গলে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ গভীর শ্রদ্ধার সাথে ভাষা শহীদদের স্মরণ শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠী’র উদ্যোগে মাতৃভাষা দিবস পালিত

রেললাইনের গেটকিপারদের চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে কমলাপুরে অনশন

রাজস্ব খাতে চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে কমলাপুর রেলস্টেশনে অবস্থান ও আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করছেন গেটকিপার রাজস্বকরণ বাস্তবায়ন ঐক্য পরিষদ পূর্ব ও পশ্চিম অঞ্চলের শ্রমিকেরা। বাংলাদেশ রেলওয়ের মানোন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের ১ হাজার ৮৮৯ জন গেটকিপারের চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে এই কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

আজ রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে কমলাপুর রেলওয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে এই প্রকল্পের শত শত গেটকিপার কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন। কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া সাইফুল ইসলাম নামের এক গেটকিপার বলেন, ‘তিন থেকে চার মাস পরপর আমাদের বেতন দেওয়া হচ্ছে। এতে আমরা মানবেতর জীবন যাপন করছি। দীর্ঘদিন যাবৎ কাজ করছি, কিন্তু চাকরি স্থায়ী করা হচ্ছে না।’

গেটকিপার রাজস্বকরণ বাস্তবায়ন ঐক্য পরিষদ পূর্ব ও পশ্চিম অঞ্চলের দপ্তর সম্পাদক মো. আল মামুন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর একনেক সভার নির্দেশনা অনুযায়ী রাজস্বকরণ বাস্তবায়ন না করায় আমরা এই অবস্থান কর্মসূচি পালন করছি। আমাদের ১ হাজার ৮৮৯ জন গেটকিপারের নিয়োগ যত দিন পর্যন্ত রাজস্ব খাতে স্থায়ী করে প্রজ্ঞাপন জারি না করা হবে, তত দিন পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে।’

আল মামুন বলেন, ‘রেলওয়ের পূর্বাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলের লেভেল ক্রসিংগুলোর পুনর্বাসন ও মানোন্নয়ন শীর্ষক দুটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয় ২০১৫ সালে। এর মধ্যে ১ হাজার ৮৮৯ জন গেটকিপারকে অস্থায়ীভাবে নিয়োগ দেওয়া হয়। দুবার প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে, তার পরও আমাদের স্থায়ী করা হয়নি।’

‘বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের লেভেল ক্রসিং গেটসমূহের পুনর্বাসন ও মানোন্নয়ন’ এবং ‘বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের লেভেল ক্রসিং গেটসমূহের পুনর্বাসন ও মানোন্নয়ন’ শীর্ষক প্রকল্প দুটি ২০১৫ সালের ২৫ জুন একনেক সভায় অনুমোদিত হয়।

মূল প্রকল্পের আওতায় অবকাঠামো নির্মাণ এরই মধ্যে সমাপ্ত হয়েছে। পাশাপাশি একনেক সভার নির্দেশনাক্রমে পূর্বাঞ্চলে ৮২৯ ও পশ্চিমাঞ্চলে ৮৫১ জনকে গেটকিপার হিসেবে পদায়ন করা হয়েছে। তাই প্রকল্প দুটির আওতায় সংস্থানকৃত গেটকিপারদের রাজস্ব খাতে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com