বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৪৫ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
প্রকাশক ও সম্পাদক : মোঃ বিল্লাল হোসেন।  আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট রাসেল । যোগাযোগ : ০৩১-৭২৮০৮৫, ০১৮১১৫৮৮০৮০ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com জহুর উল্লাহ বিল্ডিং (৩য় তলা), পানওয়ালা পাড়া, চৌমুহনী, উত্তর আগ্রাবাদ ১২৭৭, চট্টগ্রাম।
সংবাদ শিরোনাম:
নওগাঁ প্রাইভেট কার থেকে ৭২ কেজি গাঁজাসহ মুনির হোসেন নামে এক জন গ্রেফতার আদিতমারীতে তিস্তা সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির সভাপতি এম,এ হাশেমের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ রাঙামাটি জেলা শহরের উপকণ্ঠ মানিকছড়িতে স্যালাইনের ব্যাগে চোলাই মদ, নারী গ্রেফতার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আর ও এক রোহিঙ্গা শিশুর মৃত্যু লোহাগাড়ায় ২৫টি স্মার্ট মোবাইল সেট উদ্ধারপূর্বক মালিকের নিকট হস্তান্তর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অধিনায়কের কার্যালয় র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৭ পতেঙ্গা, চট্টগ্রাম যশোরের শার্শায় ৩টি অবৈধ  ক্লিনিকের অপারেশন থিয়েটার সিলগালা করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ  নওগাঁর ধামুইরহাটের হরিতকিডাঙ্গা থেকে ট্যাপান্টাডলসহ ০১ মাদক কারবারী কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৫ পুলিশ লাইনস মাঠে পুলিশ সপ্তাহ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যশোরের কেশব বিরল রোগে আক্রান্ত মেধাবী শিক্ষার্থী অনুশিখা কে বাচাতে এগিয়ে আসুন

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে আজ (২০ ফেব্রুয়ারি) রবিবার মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। তবে বর্তমানে তার কোনো পোর্টফোলিও ছিল না। তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকেই মমতার সঙ্গী ছিলেন এই মন্ত্রী। তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী।

সাধন পাণ্ডে ২০২১ সালের ভোটের পর থেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। এবার বিধানসভা নির্বাচনে তিনি মানিকতলা থেকে তৃণমূলের টিকিটে জয়ী হয়ে মন্ত্রী হয়েছিলেন। কিন্তু তারপরেই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। কলকাতার হাসপাতালে তিনি দীর্ঘদিন ভর্তি ছিলেন।

তারপর আরও ভালো চিকিৎসার জন্য তাকে মুম্বাইয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু মৃত্যুর কাছে হার মানতে হলো এই বর্ষীয়ান মন্ত্রীকে। ৭১ বছর বয়সেই থেমে গেল তার পথ চলা।

দশ বছর আগে তার কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়েছিল। তারপর থেকেই তিনি রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ দপ্তর সামলেছেন। এবারও তিনি বিধানসভায় প্রতিদ্বন্দ্বিতায় করেন এবং প্রচার পর্বেও একবার অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন।

২০২১ সালের জুলাই মাসে তিনি ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন। ফুসফুসের সংক্রমণে আক্রান্ত এই মন্ত্রীকে কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।তারপর কয়েকদিনের মধ্যেই বাড়ি ফিরে আসেন। বিজেপির হেবি ওয়েট প্রার্থী কল্যাণ চৌবেককে হারিয়ে ফের তিনি মমতা ব্যানার্জীর মন্ত্রিসভায় স্থান করে নেন।

তিনি সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন। ভেন্টিলেশনে রাখা হয় তাকে। তারপর তাকে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানেই মৃত্যু হয় সাধন পাণ্ডের।ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের পাশাপাশি রাজ্যে স্বনির্ভর ও স্বনিযুক্তি দফতরের মন্ত্রী ছিলেন সাধন পাণ্ডে।

তবে তার অসুস্থতা দীর্ঘায়িত হওয়ায় দুটি দপ্তর সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়। তারপর সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণের পর হাতবদল হয়। সাধন পাণ্ডের হাতে থাকা সব দপ্তরই অন্যদের বণ্টন করে দেওয়া হয়। তবে দপ্তরহীন মন্ত্রী রেখে দেওয়া হয় সাধন পাণ্ডেকে।

আজ (২০ ফেব্রুয়ারি) রবিবার সাধন পাণ্ডের প্রয়াণে শোকপ্রকাশ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক টুইট বার্তায় লিখেছেন, আমাদের দীর্ঘদিনের সতীর্থ, দলীয় নেতা এবং মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে মারা গেছেন। দীর্ঘদিন ধরে তার সঙ্গে সুসম্পর্ক ছিল আমার। তার প্রয়াণে আমি মর্মাহত। তার পরিবার-পরিজন, বন্ধু-বান্ধব ও অনুগামীদের প্রতি সমব্যাথী আমি।

মন্ত্রী সাধন পাণ্ডের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও। উল্লেখ্য তিনি আট বারের বিধায়ক ছিলেন।তার মেয়ে বিশিষ্ট মডেল শ্রেয়া পাণ্ডে কলকাতা পৌর নির্বাচনে ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জয় লাভ করেন।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com