বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:০০ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
প্রকাশক ও সম্পাদক : মোঃ বিল্লাল হোসেন।  আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট রাসেল । যোগাযোগ : ০৩১-৭২৮০৮৫, ০১৮১১৫৮৮০৮০ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com জহুর উল্লাহ বিল্ডিং (৩য় তলা), পানওয়ালা পাড়া, চৌমুহনী, উত্তর আগ্রাবাদ ১২৭৭, চট্টগ্রাম।
সংবাদ শিরোনাম:
ভাষা শহিদদের প্রতি মৌলভীবাজার পুনাকের শ্রদ্ধাঞ্জলি মৌলভীবাজারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে পুলিশ আওয়ামী লীগ হট্রগোল শ্রীমঙ্গলে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ গভীর শ্রদ্ধার সাথে ভাষা শহীদদের স্মরণ শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠী’র উদ্যোগে মাতৃভাষা দিবস পালিত ঢাকা-কক্সবাজার পথে পাঁচ দিনে ৫ ‘বিশেষ ট্রেন’ আর্জেন্টিনার ক্লাব ছেড়ে আবাহনীতে খেলবেন জামাল? নওগাঁ আজ যথাযোগ্য মর্যাদায় মধ্যেদিয়ে পালিত হল আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস লোহাগাড়ায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে বীর শহীদদের প্রতি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন লোহাগাড়ায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবস উপলক্ষে ব্রিকফিল্ড মালিক সমিতির পুষ্প অর্পণ

সাতকানিয়ায় নিরাপত্তা প্রহরীর রহস্যজনক মৃত্যু, স্ত্রীর দাবি হত্যা

মোঃ সেলিম উদ্দিন 

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় পা বাঁধা এক নিরাপত্তা প্রহরীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার কাঞ্চনা ফুলতলার উত্তর পার্শ্বে অবস্থিত গ্রামীণ ব্যাংক সংলগ্ন একটি নতুন নির্মাণাধীন ভবনের টিনের ঘরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত যুবকের নাম লিটন দাশ। সে কাঞ্চনা ইউনিয়নের ধুপি পাড়ার বাসিন্দা। তিনি ওই নির্মাণাধীন ভবনের নিরাপত্তাপ্রহরী হিসেবে নিয়োজিত ছিলো।

জানা যায়, নির্মাণাধীন ভবনের মালিক মো. আবু ছালেক দুবাই প্রবাসী। তার বাড়িও নিহত লিটন দাশের বাড়ির পাশে। ভবনের কাজ শুরু হলে মালামাল পাহারা দেওয়ার জন্য ২ মাস আগে নিয়োগ দিয়েছিলেন। গতকাল রাতের খাবার শেষে সুস্থবস্থায় ঘরে প্রবেশ করেছিল।

আজ সকালে ভবনের নির্মাণ শ্রমিকরা এসে ঘরের দরজা বন্ধ পান। অনেকক্ষণ ডাকাডাকির পরও দরজা না খোলায় টিনের ফাঁক দিয়ে উঁকি দিলে লিটনের ঝুলন্ত লাশ দেখা যায়।পরে পুলিশে খবর দিলে সাতকানিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছায়। পুলিশ দরজা খোলার সময় ছিটকিনি ভেঙে লিটন দাশের মরদেহ উদ্ধার করেন।

সাতকানিয়া থানার ওসি তদন্ত আতাউল ইসলাম বলেন, যেহেতু ভেতর থেকে দরজার ছিটকিনি লাগানো ছিল এটা অবশ্যই আত্মহত্যা। তার পরেও ডাক্তারী রিপোর্টে ক্লিয়ার হওয়া যাবে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।এদিকে সাতকানিয়া থানার এসআই ছালামত উল্লাহ বলেন, এখনো হত্যা নাকি আত্মহত্যা তা বুঝা মুশকিল।

এদিকে সরেজমিনে পরিদর্শনে গেলে নিহতের স্ত্রী বাবলি দাশ বলেন, আমার স্বামীর সাথে কারও কোনো সমস্যা ছিল না। আমার স্বামীকে হত্যা করা ছাড়া অন্য কোন কারণ নাই সে আত্মহত্যা করার।এলাকাবাসী জানান, লিটন দাশ খুবই ভালো ছেলে।

এ বিষয়ে জানতে নির্মাণাধীন ভবনের মালিক বিদেশে অবস্থান করায় তার স্ত্রীর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন গণমাধ্যমকর্মীরা। জানা যায়, লিটন দাশের মৃত্যুর ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর ভবন মালিকের স্ত্রীকে পাওয়া যাচ্ছে না।

নিহত লিটন দাশের এক ছেলে ও এক মেয়ে। ছেলে নবম শ্রেণি পর্যন্ত পড়লেও দারিদ্রতার কারণে এর বেশি পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারেনি। মেয়ে বর্তমানে অষ্ট্রম শ্রেণিতে পড়ছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com