রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৪৬ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
প্রকাশক ও সম্পাদক : মোঃ বিল্লাল হোসেন।  আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট রাসেল । যোগাযোগ : ০৩১-৭২৮০৮৫, ০১৮১১৫৮৮০৮০ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com জহুর উল্লাহ বিল্ডিং (৩য় তলা), পানওয়ালা পাড়া, চৌমুহনী, উত্তর আগ্রাবাদ ১২৭৭, চট্টগ্রাম।
সংবাদ শিরোনাম:
বিপিএম ও পিপিএম পদক পাচ্ছেন মৌলভীবাজার জেলার তিন পুলিশ অফিসার কমলগঞ্জে দিনব্যাপি পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত মহাসড়কে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি জোরদার করতে হবে: হাইওয়ে পুলিশ প্রধান লোহাগাড়ায় আইডিয়াল স্কুলে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে আলোচনা, বার্ষিক পুরুষ্কার বিতরণী ও সেরা মা অ্যাওয়ার্ড প্রদান সংগঠন বিরোধী কার্ষকলাপের অভিযোগে যশোর জেলা  যুবলীগ নেতা মিলনকে অব্যাহতি ভাষা শহিদদের প্রতি মৌলভীবাজার পুনাকের শ্রদ্ধাঞ্জলি মৌলভীবাজারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে পুলিশ আওয়ামী লীগ হট্রগোল শ্রীমঙ্গলে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ গভীর শ্রদ্ধার সাথে ভাষা শহীদদের স্মরণ শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠী’র উদ্যোগে মাতৃভাষা দিবস পালিত

নীলফামারীতে সূর্যমুখী চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকের

সত্যেন্দ্রনাথ রায়,নীলফামারী,প্রতিনিধিঃ
কেবল সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য নয় এখন বানিজ্যক উদ্দেশ্যেও চাষ হচ্ছে এই ফুলের।দেশের ভোজ্যতেলের সংঙ্কট নিরসনে কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর থেকেও সূর্যমুখী চাষে কৃষদের করা হচ্ছে উদ্ববুদ্ধ । বিনামুল্যে দেয়া হচ্ছে সার ও বীজ। সব গুলো ফুলগাছ,সবুজ হ্যাংলা গাছের চুড়ায় হলদে গাছের ফুল।
এ যেন সাজিয়ে আছে হলুদের কনে। মুখটা হলুদ আর সরীরে সবুজ শাড়ি।হঠাৎ দেখলে এমনাটাই মনে হবে। রাজা সলোমনকেও সাজালেও এত সুন্দর দেখাবেনা। নাম তার সূর্যমুখী। নীলফামারীর ডোমারে সূর্যমুখী তেল জাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি কল্পে ও শস্য চাষাবাদে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকের ।
উপজেলায় এবারে সরকারী প্রনোদনায় এক একর জমিতে তেল জাতীয় শস্য সূর্যমুখী চাষ করা হচ্ছে। বর্তমানে ফুলে ফুলে ভড়ে উঠেছে খেত। লাভের আশা করছেন হরিনচড়া ইউনিয়নের ১নংওয়ার্ডের মিস্ত্রীপাড়া এলাকার প্রতিবন্ধী কৃষক সুবাস চন্দ্র রায়।
তিনি আরো বলেন আমি বর্গা চাষী বিনা মুল্যে আমাকে সার ও বীজের ব্যবস্থা করে দিয়েছে, ডোমার উপজেলা উপসহকারী কৃষি অফিসার নাজির হোসেন,আবাদে মোট খরচ আট হাজারের উপরে হতে পারে।
জমিতে যেন ভালো ফলন পাই সে কারনে প্রতি সপ্তাহে হামাক পরামর্শ দিতে আসেন স্যার ।উপ সহকারী অফিসার সাথে কথা হলে তিনি বলেন কম খরচে সূর্যমুখী আবাদ করা যায়,৩৩ শতাংশে জমিতে সর্বোচ্চ ২৬৬ কেজি,নিম্নে ১৬০ কেজি ফলন হতে পারে।
উপজেলা কৃষি অফিসার (কৃষিবিদ) আনিছুজ্জামান ও অফিস সুত্রে জানাজায় এবারে উপজেলায় ১ একর জমিতে সূর্যমুখী চাষ হয়েছে, এবং দেশে ভোজ্যতেলের সংঙ্কট নিরশনে কৃষিসম্প্রসারন অধিদপ্তর থেকে সূর্যমুখী চাষাবাদে কৃষকদের উদ্ববুদ্ধ করনে বিভিন্ন প্রকার সভা সেমীনার প্রচারনা চালানো হচ্ছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com