রবিবার, ১৪ Jul ২০২৪, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
চেয়ারম্যান: মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, বার্তা প্রধান : মোহাম্মদ আসিফ খোন্দকার, আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট ইলিয়াস , যোগাযোগ : ০১৬১৬৫৮৮০৮০,০১৮১১৫৮৮০৮০, ঢাকা অফিস: ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম রোড, চৌধুরী মল (৫ম তলা), টিকাটুলি ১২০৩ ঢাকা, ঢাকা বিভাগ, বাংলাদেশ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com চট্টগ্রাম অফিস: পিআইবি৭১ টাওয়ার , বড়পুল , চট্টগ্রাম।
সংবাদ শিরোনাম:
বঙ্গবন্ধু কন্যা গোলামী চুক্তি করেননি উন্নয়নের চুক্তি করেছেখাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদা নওগাঁর মান্দা গোটগাড়ী অধ্যক্ষের কক্ষের তালা ভেঙে প্রবেশ করলেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাংবাদিকদের বিতর্কিত করায় এনবিআর কর্মকর্তা মতিউরের প্রথম স্ত্রী লাকীর বিরুদ্ধে বিএমইউজে চট্রগ্রাম জেলা আহবায়ক কমিটির প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের প্রয়াণ দিবস আজ জুয়া খেলার সরঞ্জাম ও নগদ টাকাসহ পাঁচজন জুয়াড়ি গ্রেফতার বিপৎসীমার ওপরে তিস্তা-ধরলার পানি, পানিবন্দি ১৫ হাজার মানুষ হাড্ডাহাড্ডি দুই চৌধুরীর ‘লড়াই লোহাগাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জিতে গেলেন খোরশেদুল আলম চৌধুরী কোন লক্ষণে বুঝবেন বিবাহবিচ্ছেদ ঘটতে পারে? সিসিটিভি ফুটেজ এবং ‘Hello CMP’ অ্যাপের “আমার গাড়ি নিরাপদ” সেবার সহায়তায় মুখে হাসি ‘সরকার নারীর গৃহস্থালি কাজের অর্থনৈতিক মূল্য নির্ধারণের বিষয় বিবেচনা করছে’- অর্থ প্রতিমন্ত্রী

কমলগঞ্জ সাব রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে ঘুষ বানিজ্যের অভিযোগে দলিল লেখকদের কর্মবিরতি

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা সাব রেজিস্ট্রার রহমত উল্লা লতিফের বিরুদ্ধে দলিল প্রতি ঘুষ বানিজ্য ও অসদাচরণ করাসহ বিভিন্ন অভিযোগে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতির ঘোষনা দিয়েছে কমলগঞ্জ দলিল লেখক সমিতি।

আজ (১১ এপ্রিল) সোমবার দুপুর থেকে কর্মবিরতি ঘোষণা করে দলিল লেখা বন্ধ রেখেছে উপজেলার দলিল লেখকরা। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে জমির ক্রেতা-বিক্রেতারা।

কমলগঞ্জ দলিল লেখক সমিতির সভাপতি, পৌর কাউন্সিলর মো. বখতিয়ার খাঁন সাংবাদিকদের জানান, দলিল রেজিস্ট্রি করাতে গেলে দলিল প্রতি অতিরিক্ত টাকা দাবি করে সাব রেজিস্ট্রার রহমত উল্লা লতিফ। এমনকি জাতীয় পরিচয়পত্র আরএস পর্র্চার সাথে নামের একটা অক্ষর ভুল থাকলেও তাকে অতিরিক্ত টাকা দিতে হয়। নাহলে তিনি দলিল রেজিস্ট্রি করে না।

প্রতিটি দলিল দাখিল করার আগে তার সাথে কন্টাক্ট না করলে দলিল হয়না।এছাড়া তার ব্যবহারও সম্মানজনক নয়, দলিল দাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি দিলে তিনি গ্রহন করেন না। এসব বিষয়ে আমরা প্রতিবাদ করলে এজলাস থেকে আমার দিকে তেড়ে আসেন তখন অন্য দলিল লেখকরা এগিয়ে এলে তিনি হুমকি দিয়ে বলেন,তার শরীর থেকে ভার্সিটির গন্ধ নাকি এখনো যায়নি।

আমরা তাকে অপসারণ না করা পর্যন্ত কর্মবিরতি চালিয়ে যাব।দলিল করতে আসা শমশেরনগর বাজারের মো. মনির হোসেন জানান, জাতীয় পরিচয়পত্রে আফরোজ আলী ও আরএস পর্চায় আফরোজ মিয়া থাকায় প্রত্যায়নপত্র প্রদান করার পরও টাকা দাবী করেন সাব রেজিস্ট্রার।তবে এ বিষয়ে উপজেলা সাব রেজিস্ট্রার রহমত উল্লা বলেন তার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ উঠেছে তা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।দলিল লেখক সমিতির সভাপতিকে লাি তের বিষয়ে তিনি তা সঠিক নয় বলে জানান।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মৌলভীবাজার জেলা রেজিস্ট্রার এস, এম, সোহেল রানা মিলন বলেন, বিষয়টি আমি এখনো জানি না। তবে এখানে অনিয়ম বা দুর্নীতি করার কোন সুযোগ নেই। যদি কেউ এই ধরনের কোন কাজ করে থাকে তাহলে আমাদের উর্ধতন কর্মকর্তাদের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেবো। জনগন যেন আর ভোগান্তির শিকার না হয় দ্রæত সে ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com