শনিবার, ২০ Jul ২০২৪, ০৪:৩১ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
চেয়ারম্যান: মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, বার্তা প্রধান : মোহাম্মদ আসিফ খোন্দকার, আইনবিষয়ক সম্পাদক: অ্যাডভোকেট ইলিয়াস , যোগাযোগ : ০১৬১৬৫৮৮০৮০,০১৮১১৫৮৮০৮০, ঢাকা অফিস: ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম রোড, চৌধুরী মল (৫ম তলা), টিকাটুলি ১২০৩ ঢাকা, ঢাকা বিভাগ, বাংলাদেশ মেইল: bdprotidinkhabor@gmail.com চট্টগ্রাম অফিস: পিআইবি৭১ টাওয়ার , বড়পুল , চট্টগ্রাম।
সংবাদ শিরোনাম:
কোটা আন্দোলনে সাধারণ স্কুল কলেজ ছাত্র ও ছাত্রীরা ১০ ঘন্টা বন্ধ করে দেয় নওগাঁ-সান্তাহারের রেলযোগাযোগ যশোরের ঝিকরগাছায় প্রবাসীর স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা ,কন্যা গুরুতর আহত বঙ্গবন্ধু কন্যা গোলামী চুক্তি করেননি উন্নয়নের চুক্তি করেছেখাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদা নওগাঁর মান্দা গোটগাড়ী অধ্যক্ষের কক্ষের তালা ভেঙে প্রবেশ করলেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাংবাদিকদের বিতর্কিত করায় এনবিআর কর্মকর্তা মতিউরের প্রথম স্ত্রী লাকীর বিরুদ্ধে বিএমইউজে চট্রগ্রাম জেলা আহবায়ক কমিটির প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের প্রয়াণ দিবস আজ জুয়া খেলার সরঞ্জাম ও নগদ টাকাসহ পাঁচজন জুয়াড়ি গ্রেফতার বিপৎসীমার ওপরে তিস্তা-ধরলার পানি, পানিবন্দি ১৫ হাজার মানুষ হাড্ডাহাড্ডি দুই চৌধুরীর ‘লড়াই লোহাগাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জিতে গেলেন খোরশেদুল আলম চৌধুরী কোন লক্ষণে বুঝবেন বিবাহবিচ্ছেদ ঘটতে পারে?

যশোরের গদখালীতে ফুটেছে শীতপ্রধান দেশের নজরকাড়া ফুল টিউলিপ

পরীক্ষামূলকভাবে চাষের মাত্র ১৮ দিনের মাথায় ফুটেছে এ ফুল। এর ফলে ফুলের রাজধানী হিসেবে খ্যাত গদখালীতে যোগ হয়েছে নতুন মাত্রা। ইউরোপের রাজসিক ফুল টিউলিপ দেখতে দর্শনার্থীদের পাশাপাশি ফুলচাষিদের মধ্যেও ব্যাপক সাড়া পড়েছে। বীজ (কন্দ) সংগ্রহের মাধ্যমে আগামীতে বাণিজ্যিকভাবে টিউলিপ কৃষক পর্যায়ে ছড়িয়ে পড়বে বলে দাবি কৃষি বিভাগের।

বরাবরই নতুন জাতের ফুল উৎপাদনে উৎসাহী যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার পানিসারা গ্রামের ফুলচাষি ইসমাইল হোসেন। গোলাপ ও রজনীগন্ধার পাট চুকিয়ে তিনি উৎপাদন করেছেন লংস্টিক, লিলিয়াম ও জারবেরা। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি কৃষি বিভাগের সহায়তায় পরীক্ষামূলকভাবে মাত্র পাঁচ শতক জমিতে রোপণ করেছেন নেদারল্যান্ডসের ফুল টিউলিপ। বর্তমানে ইসমাইলের পলিথিনের শেডের নিচে ঝলমল করছে সবুজ কা- ও পাতার ওপরে লাল, সাদা, হলুদ, জাম, লাল-হলুদ, সাদা-হলুদ, গোলাপি রঙের চোখ ধাঁধানো এ সময়ের সবচেয়ে দামি ফুল টিউলিপগুলো।

এ প্রসঙ্গে ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘মূলত উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুদ হোসেন টিউলিপ চাষের ব্যাপারে আমাকে আগ্রহী করেন এবং সরকারি খরচে কৃষি বিভাগ থেকে তিনি ৫ হাজার টিউলিপ ফুলের বীজের ব্যবস্থা করে দেন। নেদারল্যান্ডস থেকে আসা কন্দগুলো ২ জানুয়ারি পাওয়ার পর ৬ জানুয়ারি তা রোপণ করি। মাত্র ১৮ দিনের মধ্যে কলি আসে এবং ২৬ দিনের মাথায় ফুলে ফুলে ভরে ওঠে গাছগুলো। টিউলিপের সৌন্দর্যে আমি নিজেই মুগ্ধ। এ খবর ছড়িয়ে পড়ায় স্থানীয় ফুলচাষিসহ এখানে ঘুরতে আসা তরুণ-তরুণীরাও ভিড় করছেন আমার ক্ষেতে। ইচ্ছা না থাকলেও প্রতি পিস ১২০ টাকা করে ১২টি ফুল বিক্রি করেছি। ভালোবাসা দিবস পর্যন্ত ফুলগুলো রেখে দিতে চাই। যাতে ফুলপ্রেমীরা এটা দেখতে পান।’

তিনি বলেন, ‘গদখালীতে আমিই প্রথম এই ফুলের চাষ করেছি। আসলে এর সৌন্দর্যে এতটাই মুগ্ধ হয়েছি, বিক্রির চিন্তা করছি না। দেখেই মন ভরে যাচ্ছে।’

শীতপ্রধান দেশের ফুল উল্লেখ করে ইসমাইল বলেন, ‘আমাদের এখানেও শীতের মৌসুমে নির্দিষ্ট সময়ে এটা রোপণ করে ফুল পাওয়া সম্ভব। আমি ২৪০ (৩৬ ইঞ্চি মাপের বেডে) ৬ ইঞ্চির বেশি দূরত্বে বীজ বপন করেছি। পানি নিষ্কাশনের ড্রেনও করেছি। মাত্র দুইবার সেচ ও জৈব সার ব্যবহার করে এক মাসের মধ্যেই ফুল পেয়েছি। প্রথম দফায় কিছুটা ভুলের কারণে কিছু গাছ একটু দেরিতে হয়েছে।’

টিউলিপ ফুলের বাগান দেখতে আসা সাদিয়া ইয়াসমিন মুন বলেন, ‘গদখালিতে আসার অনেক দিনের ইচ্ছা পূরণ হয়েছে তার। চোখেমুখে বিস্ময় নিয়ে তিনি বলেন, টেলিভিশন, ইউটিউব আর পত্রিকার পাতায় কেবল টিউলিপ ফুলের গল্প শুনেছি। আজ (১১ ফেব্রুয়ারি) শুক্রবার নিজ চোখে দেখলাম টিউলিপ ফুল। সামনাসামনি দেখে এত ভালো লাগছে কথায় বোঝানো যাবে না।’

স্থানীয় ফুলচাষি ইমামুল হোসেন বলেন, ‘আমাদের এখানে যে ফুল চাষ হয়, তা একে অপরকে দেখে শেখা। ইসমাইল এর আগেও নতুন নতুন ফুল চাষ করেছে। এবার সে টিউলিপ ফুটিয়েছে। কয়েকদিন ধরে খবরটা শুনে আজ (১১ ফেব্রুয়ারি) শুক্রবার  দেখতে এলাম। ফুলগুলো মন কেড়ে নিয়েছে। ফুলের আকার দেখে মনে হচ্ছে চাষ করলে ভালো ফলন হবে। এজন্য ইসমাইলের কাছ থেকে টিউলিপের চাষ পদ্ধতি জেনে নিয়েছি। সামনের বছর তার কাছ থেকে বীজ নেওয়ার আশা প্রকাশ করেন তিনি।’

ঝিকরগাছা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুদ হোসেন পলাশ বলেন, পারস্যে লাল টিউলিপকে ভালোবাসার প্রতীক হিসেবে চিত্রিত করা হয়। পামির মালভূমি ও হিন্দুকুশ পর্বতমালা থেকে উদ্ভূত হয়ে টিউলিপ কাজাখস্তানে স্থানান্তরিত হয়। যা পরবর্তীতে ইউরোপের দক্ষিণাংশ, উত্তর আমেরিকা, এশিয়ার আনাতোলিয়া থেকে ইরানের পূর্বাংশ, চীনের উত্তর-পূর্বাংশ, জাপান, মধ্যপ্রাচ্য ও আফগানিস্তানে ছড়িয়ে পড়ে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ‘বৃহত্তর কুষ্টিয়া ও যশোর অঞ্চল কৃষি উন্নয়ন প্রকল্পের’ মাধ্যমে ঝিকরগাছা উপজেলার পানিসারায় টিউলিপ ফুলের চাষ শুরু হয়েছে। নেদারল্যান্ডস থেকে টিউলিপ ফুলের মোট আট প্রজাতির বীজ আনা হয়েছে। ৫ হাজার টিউলিপ ফুলের বীজ ঝিকরগাছায় লাগানো হয়েছে। লাগানোর এক মাসের মধ্যে ফুল ফুটেছে। ইসমাইল হোসেনের ক্ষেতে যে ফুল এসেছে তার আকার ও রঙ ভালো। আমাদের ঝিকরগাছা উপজেলার পানিসারাতে একটি কোল্ড স্টোরেজ করা হয়েছে। আশা করছি, কন্দ থেকে নতুন বীজ তৈরি করে সেখানে সংরক্ষণ করা সম্ভব হবে। এটা করতে পারলে আগামী বছর থেকে পুরো গদখালীতে হেক্টর হেক্টর জমিতে এ ফুলের আবাদ হবে

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ওয়েবসাইট এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পুর্ণ বেআইনি
Design & Development BY ThemeNeed.Com